বগুড়ায় গলায় দড়ি দিয়ে এক গৃহবধূর আত্মহত্যা2 মিনিটে পড়ুন

32

 

বগুড়ায় গলায় দড়ি দিয়ে শাহারাম তারতিলা পামি (৩৭) নামে এক গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে।

৬ অক্টোবর মঙ্গলবার রাত ৯ টার দিকে শহরের মালতীনগর হাই স্কুল রোডে  তার ভাইয়ের বাসায়  ফ্যানের সাথে দড়ি দিয়ে সে আত্মহত্যা করে।

তিনি জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার হারুপ্তার মৃত সামাদের ছেলে শেখ মাহমুদুল হক এর স্ত্রী। তার একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

তার ভাই মিশকাত রহমান জানান, তার মেজো বোন পামি সে বাড়ীতে না থাকার সুযােগে  শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে ঘরের দরজা ভিতর হইতে বন্ধ করে ওড়না দ্বারা সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। দীর্ঘ সময়  তার শয়ন কক্ষের ভিতর  বন্ধ দেখে তার মা তাকে ঘটনাটি মোবাইল ফোনে তাকে জানায় এবং সে আসার পূর্বেই তার ভাগিনা ও স্থানীয় লোকজন দরজা ভেঙ্গে দেখে তার বোন গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলছে। তারপর সবাই মিলে  মৃতদেহ ঘরের মেঝেতে রাখে পুলিশকে খবর দেয়।

বগুড়া জেলা পুলিশের মিডিয়া মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী জানান, আমরা জেনেছি মারা যাওয়া পামির স্বামী বগুড়া জেলা কারাগারে রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি আত্মহত্যা। তবে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানার জন্য তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানাে হয়েছে।