কঠিন সময়ে আরো দায়িত্বশীল হওয়ার ঘোষণা ব্যথিত ধোনির3 মিনিটে পড়ুন

37

খোলাধুলা ডেস্ক: সামির

আইপিএল শুরুর আগেই দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার সুরেশ রায়না ও হরভজন সিংকে হারায় চেন্নাই সুপার কিংস। আসর শুরুর আগে দলের গুরুত্বপূর্ণ দুই সদস্যকে হারানোর চাপ সামলে উঠতে পারেনি তিনবারের চ্যাম্পিয়নরা। টানা ব্যর্থতায় হুমকির মুখে আগের সব আসরে শেষ চারে খেলার রেকর্ড। প্লে-অফে নাম লেখাতে এখন ভাগ্যের উপর নির্ভর করতে হবে তাদের। শুক্রবার মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাছে ১০ উইকেটের লজ্জাজনক পরাজয় বরণ করেছে চেন্নাই। ১১ ম্যাচে অষ্টম হারের পর অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি হতাশা লুকাননি। মুম্বইয়ের কাছে হারের পর ধোনি বলেন, ‘এই হার ভীষণ কষ্টের। আমাদের সমস্যাগুলো খুঁজে বের করতে হবে।

বছরটা একেবারেই আমাদের ছিল না। এবারের আসরে দু’একটি ম্যাচে আমরা সফল হতে পেরেছি। এমন পারফরমেন্সে দলের সবাই দারুণ ব্যথিত। সত্যি কথা বলতে তারা নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করছে। কিন্তু সবসময় নিজের পছন্দমতো সবকিছু ঘটে না। বাকি তিন ম্যাচে আমরা নিজেদের শেষ চেষ্টা করব।’

আইপিএলের ত্রয়োদশ আসরটা ভুলে সামনে তাকাতে চান ধোনি। শেষের তিন ম্যাচকে তাই নতুন মৌসুমের প্রস্তুতি হিসেবেই দেখছেন চেন্নাই অধিনায়ক। দলের এই কঠিন সময়ে আরো দায়িত্বশীল হওয়ার প্রতিজ্ঞা ৩৯ বছর বয়সী এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানের। নতুনদের সুযোগ করে দিতে বেঞ্চে বসে কাটাতেও আপত্তি নেই ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা অধিনায়কের। ধোনি বলেন, ‘পরের আসর নিয়ে আমাদের এখনই ভাবতে হবে। শেষ তিন ম্যাচ বেঞ্চের খেলোয়াড়দের পরখ করার সুযোগ। নতুন মৌসুমের দল গঠনের জন্য নতুনদের পরখ করা গুরুত্বপূর্ণ। দলের এই কঠিন সময়ে আমি পালিয়ে যেতে পারি না। আমি শেষ তিন ম্যাচে দলের সঙ্গেই থাকছি।’

১১ ম্যাচে তিন জয়ে আট দলের মধ্যে সবার নীচে চেন্নাই সুপার কিংস। প্লে-অফের আশা কার্যত শেষ রেকর্ড আটবার আইপিএলের ফাইনাল খেলা দলটির। শেষ তিন ম্যাচে জয়ের পাশাপাশি তাকিয়ে থাকতে হবে অন্যদের ম্যাচের ফলাফলের উপর।