শেষ পর্যন্ত পদত্যাগ করলেন বার্সা সভাপতি2 মিনিটে পড়ুন

32

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

হয়তো আঁচ করতে পারছিলেন সামনে অপেক্ষা করছে বড় ধরনের লজ্জা। অনাস্থা ভোটে হেরে গেলে তখন বিদায়ের সঙ্গে জুটত ভর্ৎসনাও। আগেভাগে সম্মান বাঁচাতে বার্সোলোনা ক্লাবের সভাপতি পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন জোসেফ বার্তোমেউ।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বোর্ড মিটিংয়ের পর বার্তোমেউয়ের সঙ্গে বাকি পরিচালকরাও পদত্যাগ করেন। নতুন সভাপতি নিয়োগে আগামী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

অনেক পানি ঘোলা করে সভাপতির পদ ছাড়লেন বার্তোমেউ। গেল মৌসুমের পরই বার্সার অন্দর মহলে শুরু হয় অস্থিরতা। শিরোপাহীন মৌসুম। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের বায়ার্নের সঙ্গে ৮ গোল হজম, কোচ বদল, অভ্যন্তরীন নানা সমস্যা মাথা চাড়া দিয়েছিল। এই সময়ে দলের প্রাণভোমরা লিওনেল মেসি ঘোষণা দেন বার্সা ছাড়ার। শুরু হয় নতুন আলোচনা।

মেসির মূল দ্বন্দ্বটাই ছিল বার্সা সভাপতি ঘিরে। কিন্তু সভাপতি তার সিদ্ধান্তে ছিলেন অনড়। ছেড়ে দেননি নিজের চেয়ার। সভাপতির পদত্যাগের জন্য রাস্তায় নেমে এসেছিল বার্সা ভক্তরা। কিন্তু বার্তোমেউ চলেছেন নিজের মতো। অন্যদিকে মেসিও বিশাল অঙ্কের টাকার মারপ্যাঁচে পড়ে ছেড়ে যেতে পারেননি বার্সা। প্রিয় ক্লাবকে টেনে নিয়ে যাননি আদালত অবধি। অগত্যা থেকে যান ন্যু ক্যাম্পে। সব মিলেয়ে বার্সার অভ্যন্তরে চরম অস্থির সময়ের দায় পড়েছিল বার্তোমেউয়ের ওপর।

সভাপতির পদে থাকলেও মাঝে মধ্যেই সমালোচনা হজম করতে হয় তাকে। সম্প্রতি বলিষ্ঠ কণ্ঠে ঘোষণাও দিয়েছিলেন, তিনি থাকছেন সভাপতি হিসেবে ক্লাবের স্বার্থে। কিন্তু অনাস্থা ভোটের প্রস্তুতি বুকে কাঁপন ধরিয়ে দেয় বার্তোমেউকে।

মেয়াদ শেষের আগেই তাকে সরাতে ক্লাবের ২০ হাজার সদস্য অনাস্থা ভোট আয়োজনের পক্ষে নিজেদের মত দেয়। প্রাথমিকভাবে আগামী রোববার ও সোমবার তা আয়োজনের কথা ছিল। অবশ্য তার আগেই সরে গিয়ে সব সমস্যার আপাতত সমাধান করে গেলেন বার্তোমেউ।