ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে অমিতাভের বিরুদ্ধে মামলা2 মিনিটে পড়ুন

64

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

ভারতের কিংবদন্তি অভিনেতা অমিতাভ বচ্চনের উপস্থাপনায় তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছে ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’ রিয়েলিটি শোটি। প্রতি বছরই নানা চমক নিয়ে হাজির হন তিনি এই অনুষ্ঠানে। তবে এ বছরের আসর নিয়ে তিক্ত অভিজ্ঞতার মুখোমুখি তিনি। অমিতাভ বচ্চনের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এই মামলা দায়ের করা হলো হিন্দুদের অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার জন্য। প্রশ্ন ও উত্তরের মাধ্যমে হিন্দু ধর্মের অবমাননার অভিযোগে অমিতাভ বচ্চন এবং ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’র নির্মাতাদের বিরুদ্ধে লখনউতে এ মামলা দায়ের হয়েছে।
রিয়েলেটি অনুষ্ঠানটির সর্বশেষ এপিসোডে অতিথি হিসেবে এসেছিলেন সমাজকর্মী বেজওয়াদা উইলসন এবং অভিনেতা অনুপ সনি। অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে প্রশ্ন করা হয় ১৯২৭ সালের ২৫ ডিসেম্বর ড. বি আর আম্বেদকর এবং তার অনুসারীরা কোন ধর্মগ্রন্থের অনুলিপি পুড়িয়ে দিয়েছিলেন?
যে বিকল্পগুলি সরবরাহ করা হয়েছিল সেগুলি হলো (এ) বিষ্ণু পুরাণ (খ) ভগবদ গীতা (সি) রিগদেব (ডি) মনস্মৃতি। প্রশ্নটির উত্তর ছিল মনস্মৃতি।

উত্তরটি দেওয়ার পর অনুষ্ঠানটির উপস্থাপক অমিতাভ ব্যাপারটির ১৯২৭ সালের সেই দিনের বর্ণনা দিতে থাকেন। তবে ব্যাপারটি সহজভাবে নিতে পারেনি ভারতের অনেক হিন্দু ধর্ম অনুসরণকারীরা।
অমিতাভের বর্ণনা নিয়ে তাদের মধ্যে ক্ষোভ জন্ম নিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সে নিয়ে অনেক বিতর্কও দেখা দেয়। তারা দাবি করেন, অমিতাভের বক্তব্য হিন্দুদের ধর্মানুভূতিতে আঘাত করেছে। অমিতাভ এতো বড় একজন মানুষ হয়েও এই সকল স্পর্শকাতর বিষয়ে কীভাবে প্রশ্ন করেন?
এরপর তাদেরই একাংশ জোটবদ্ধ হয়ে লাখনাউতে অমিতাভের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।
তবে এই মামলা নিয়ে অমিতাভ কিংবা ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’র কেউ মুখ খুলেননি।