ফুটবলারদের কাছে শতভাগ চান সালাউদ্দিন3 মিনিটে পড়ুন

60

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

মার্চের পর থেকে দেশে সব ধরনের ফুটবল বন্ধ। প্রায় ৯ মাস পর গতকাল নারী প্রিমিয়ার লীগের মধ্যদিয়ে এই বন্ধ তালা খুললেও আন্তর্জাতিক ফুটবলে বাংলাদেশ মাঠে নামবে আগামী ১৩ ও ১৭ই নভেম্বর। নেপালের বিপক্ষে এই ম্যাচ দুটিতে ফুটবলারদের শতভাগ দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন কাজী সালাউদ্দিন। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে গতকাল জাতীয় ফুটবল দলের অনুশীলন দেখতে এসে এ কথা বলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি ও জাতীয় দলের এই সাবেক অধিনায়ক । দুই সহ-সভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ ও আতাউর রহমান মানিককে পাশে নিয়ে গণমাধ্যমকে সালাউদ্দিন বলেন, ‘ফুটবলারদের বলেছি ম্যাচে হার-জিত থাকবে। তোমরা শতভাগ দিয়ে খেলবে।’
নেপালের বিপক্ষে দুটি আন্তর্জাতিক ফিফা প্রীতি ম্যাচ ঘিরে ২৪শে অক্টোবর থেকে অনুশীলন শুরু করেছে বাংলাদেশ দল। দীর্ঘ সাত মাস পর আন্তর্জাতিক ম্যাচ দিয়ে ফুটবল ফিরছে দেশের মাটিতে এটাই স্বস্তির সালাউদ্দিনের কাছে। ঘাটতি পূরণ করতে ফুটবলারদের আরও ছয় মাস লেগে যেতে পারে বলে মনে করেন তিনি।

সালাউদ্দিন বলেন, ‘ফুটবলারদের ফিটনেসে এখনও ঘাটতি আছে। ঘাটতি থাকাটা স্বাভাবিক; কেননা সাত মাস ওরা ফুটবলের বাইরে ছিল। এই ঘাটতি পূরণ করতে ৬ মাসও লেগে যেতে পারে।’ তবে এটাকে সামনের ম্যাচটিতে সমস্যা হিসেবে দেখতে নারাজ কিংবদন্তির এই ফুটবলার। তিনি বলেন, ‘আমরা ফুটবল মাঠে ফেরাতে চাই। সেটা করতে ফুটবলারদের একটু সমস্যা হবে। এটা মেনে নিয়েই ওদের ম্যাচ দুটি খেলতে হবে। জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান ও বাফুফে সহ-সভাপতি কাজী নাবিল আহমেদের কাছেও ফুটবল মাঠে ফেরানোটা জরুরী। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, জয় পরাজয় যাই হোক আমরা কোভিড-১৯কে পাশ কাটিয়ে ফুটবল মাঠে ফেরাতে চাই। সে লক্ষ্যেই ম্যাচ দুটির আয়োজন করেছি। আমাদের চেষ্টা থাকবে সবদিক বিবেচনা করেই ম্যাচ দুটি আয়োজন করার। এদিকে শুক্রবার ঢাকায় পৌঁছে গতকাল দলের অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন ফিটনেস কোচ আইভান রাজলোক ও ফিজিওথেরাপিস্ট আন্দ্রে কার্ল। ফিটনেস কোচকে শিষ্যদের ফিটনেসের অবস্থা দেখাতেই ম্যাচ আয়োজন করেছেন জেমি ডে। ৬০ মিনিটের সেই অনুশীলন ম্যাচ শেষে ফরোয়ার্ড তৌহিদুল আলম সবুজ জানান তারা এখনও পুরো ফিট নন। তিনি বলেন, ‘প্রথমবার ম্যাচ খেলেছি। ৯০ ভাগ ফিট আছি। আশা করছি ম্যাচের আগে সম্পূর্ণ ফিট হয়ে যাবো। যে জায়গায় আজকে সমস্যা হয়েছে তা সামনের দিনগুলোতে থাকবে না।’