নন্দীগ্রামে নবান্ন উৎসব উপলক্ষে মাছের মেলা

134

“””””””””””””””””””””””””””””””””””””‘”””
নন্দীগ্রাম বগুড়া প্রতিনিধিঃ— বাঙালী সনাতন সম্প্রদায়ের মানুষের তিথি উৎসব নবান্ন। এই নবান্ন উৎসব উপলক্ষে ২রা অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বাংলা রোজ মঙ্গলবার বগুড়া নন্দীগ্রামের ওমরপুর, রনবাঘা, হাটকড়ই সহ বিভিন্ন বাজারে জমে উঠেছে আকর্ষণীয় মাছের মেলা। সেসব মাছের মেলায় ভোর থেকেই বেড়েছে ক্রেতা সমাগম কিনছে তাদের পছন্দের মাছ। তবে নন্দীগ্রামে সবচাইতে বড় মাছের মেলার আয়োজন করে উপজেলার উমরপুর বাজার কমিটি। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মেলা গুলোতে বিভিন্ন দোকানে থরে থরে সাজানো রুই-কাতলা, ব্রিকেট, গ্লাসকার্ফ, ব্ল্যাক কার্ফ, সিলভার, মৃগেল, হাংড়ি, বোয়াল, পাঙ্গাস সহ বিভিন্ন মাছের পসড়া আর সকল মাছ আমদানি করা হয়েছে দেশের বিভিন্ন দূর দূরান্তর নদী ও চাস করা পুকুর থেকে। আকার ভেদে মেলাগুলোতে সিলভার, ব্রিকেট মাছ বিক্রি হচ্ছে ১৮০ থেকে ৪৫০ টাকা কেজি দরে, রুই ও কাতলা মাছ বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ৫০০ টাকা কেজি দরে, চিতল মাছ বিক্রি হচ্ছে ৭৫০ থেকে ৯০০ টাকা কেজি দরে। মেলায় মাছ সম্পর্কে ওমরপুর গ্রামের মৎস্য ব্যবসায়ী আব্দুল জলিল জানান, মাছ মেলায় ৩ থেকে ৭ কেজি মাছের চাহিদা বেশি রয়েছে, তবে বড় মাছের সম্পর্কে বলেন মেলায় সর্বোচ্চ বড় মাছের মধ্যে ব্রিকেট মাছের ওজন ছিল ১৭ কেজি যা বিক্রি হয়েছে ৭ হাজার ৫শ টাকায়, ব্ল্যাক কার্প মাছের ওজন ছিল সাড়ে ১৪ কেজি যা বিক্রি হয়েছে ৩৮০ টাকা কেজি দরে ৫হাজার ৫শ টাকায় এবং কাতলা মাছের ওজন ছিল ১০ কেজি যা বিক্রি হয়েছে ৫শ টাকা কেজি দরে ৫ হাজার টাকায়। সাধারণ ক্রেতারা জানান, এ বছর সব ধরনের মাছের দাম সাধ্যের মধ্যে থাকায় সবাই নবান্ন উৎসব আনন্দ নিয়ে উপভোগ করছে।