পেরুকে হারিয়ে জয়ে ফিরল আর্জেন্টিনা3 মিনিটে পড়ুন

30

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

টানা দুই ম্যাচ জয়ের পর ঘরের মাঠে হোঁচট খেয়েছিল আর্জেন্টিনা। প্যারাগুয়ের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র। পেছনের হতাশা কাটিয়ে আবার জয়ে ফিরেছে মেসিরা। বুধবার সকালে (বাংলাদেশ সময়) লাতিন আমেরিকার অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে পেরুকে ২-০ গোলে হারিয়েছে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। ২০০৪ সালের পর পেরুর মাটিতে আর্জেন্টিনার এটি প্রথম জয়।

সাবলীল জয়ে পয়েন্ট তালিকায় দ্বিতীয় স্থান ধরে রেখেছে আর্জেন্টিনা। টানা চার জয়ে শীর্ষে রয়েছে ব্রাজিল, ১২ পয়েন্ট। চার ম্যাচে তিন জয় ও এক ড্রয়ে ১০ পয়েন্ট আর্জেন্টিনার, অবস্থান দ্বিতীয়। চার ম্যাচে জয়ের মুখ না দেখা পেরু রয়েছে নবম স্থানে। এক ড্রয়ে পয়েন্ট মাত্র ১।

পেরুর মাঠে ১৭ মিনিটেই এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা। গোলটি করেন নিকোলাস গঞ্জালেজ। লো সেলসোর দারুণ পাসে নিখুঁত শট গঞ্জালেজের। ২৮ মিনিটেই দ্বিতীয় গোলের দেখা পায় আর্জেন্টিনা। এবার গোলদাতা মার্টিনেজ। পারেদেসের দারুণ পাসে ফিনিশিং দেন মার্টিনেজ। স্কোর বেড়ে দাঁড়ায় ২-০-এ। ২০১৯ সালের অক্টোবরের পর কোনো ম্যাচের প্রথমার্ধেই দুটি গোল করল আর্জেন্টিনা।

প্রথমার্ধ শেষে স্কোর ২-০ই। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে উল্লেখযোগ্য আক্রমণে যায় পেরু। ৫২ ও ৫৪ মিনিটে দুটি প্রচেষ্টা অবশ্য শেষ অবধি ভণ্ডুল হয়ে যায়। ৬২ মিনিটে মেসির আক্রমণ। দারুণ গতিকে ডি বক্সে ঢুকেছিলেন বল নিয়ে। তবে পড়ে যান। ফেলে দেন পেরু ডিফেন্ডার সান্টামারিয়া। হতে পারত পেনাল্টি। কিন্তু রেফারি খেলা চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন।

৭৭ মিনিটে গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন আবারো মেসি। তবে তার নেয়া শট চলে যায় পোস্টের বাইরে দিয়ে। ৮৬ মিনিটে প্রতিপক্ষের বক্সে আবার পড়ে যান মেসি। চ্যালেঞ্জটা মানসম্মত ছিল বলেই পেনাল্টি হয়তো দেননি রেফারি। বাকি সময়টাতে আর গোল মেলেনি। সাবলীল জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আর্জেন্টিনা। সব ধরনের প্রতিযোগিতায় ১১ ম্যাচ অপরাজিত থাকল মেসিরা।

হারলেও এই ম্যাচে বল পজিশনে এগিয়ে ছিল পেরু, শতকরা ৫৩ ভাগ। গোলপোস্টে ১০ শট নিলেও মাত্র একটি শট ছিল তাদের লক্ষ্যে। সেখানে গোলপোস্টে ১৩ শটের মধ্যে তিনটি শট লক্ষ্যে ছিল আর্জেন্টিনার।