ধুনটে যৌতুক না পেয়ে গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার মামলার স্বামী-শ্বশুর গ্রেপ্তার2 মিনিটে পড়ুন

34

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি

বগুড়ায় এক গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টা মামলায় তার স্বামী ও শ্বশুরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেপ্তার বাবা-ছেলেকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে বুধবার রাতে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার দুইজন হলেন, বগুড়ার ধুনট উপজেলার ছোট চিকাশি গ্রামের সাজু মিয়া (২৫) ও তার বাবা রফিকুল ইসলাম (৫০)। গ্রেপ্তার দুইজনই ছোট চিকাশি গ্রামের বাসিন্দা। তাদেরকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগি ওই গৃহবধূর নাম সাথী খাতুন (২১)। সাথী ধুনট উপজেলার জোড়াখালি গ্রামের শাহজাহান আলীর মেয়ে।

মামলায় বলা হয়েছে, দুই বছর আগে সাথীর সঙ্গে গ্রেপ্তার সাজুর বিয়ে হয়। বিয়ের সময় জামাই সাজুকে ৭০ হাজার টাকা যৌতুক দেন সাথীর বাবা শাহজাহান। কিন্তু বিয়ের এক বছর পরেই সাজুর তার স্ত্রী সাথীকে যৌতুক হিসেবে তার বাবার বাড়ি থেকে আরও তিন লাখ টাকা নিয়ে আসতে বলেন। যৌতুকের তিন লাখ টাকা দিতে সাথীর বাবা-মা রাজি হননি।

এই কারণে সাজু ও তার পরিবার সাথীর ওপর নির্যাতন শুরু করেন। একপর্যায়ে গত ২৩ আগস্ট বিকেলে গৃহবধূ সাথীর শরীরের কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে তার স্বামী, শ^শুর-শ^াশুড়ি ও ননদ।

পুলিশ জানায়, গৃহবধূ সাথীর চাচা আলম শেখ বাদী হয়ে ধুনট থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় অভিযুক্তরা হলেন গৃহবধূর স্বামী, শ্বশুর-শ্বাশুড়ি ও ননদ।

জানতে চাইলে ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, মামলার অন্য অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।