বগুড়ার শেরপুরে গৃহবধূকে হেনস্থা করার ঘটনায় পুলিশ কনস্টেবলসহ আটক ৩2 মিনিটে পড়ুন

28

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি

বগুড়ার শেরপুরে এক গৃহবধূকে অবরুদ্ধ করে হেনস্থা করার ঘটনায় পুলিশ কনস্টেবলসহ (সাময়িক বরখাস্ত) তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূ বাদি হয়ে গত শনিবার (০৫ডিসেম্বর) দুপুরে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরআগে অভিযান চালিয়ে মামলায় অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা হলেন- উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের মহিপুর কলোনি গ্রামের হাফিজার রহমানের ছেলে পুলিশ কনস্টেবল মো. শিলু মিয়া (৩০), একই ইউনিয়নের মহিপুর বাজার এলাকার আব্দুস সামাদ ভগলুর ছেলে মো. রুবেল হোসেন (২৯) ও মৃত সিফার উদ্দিনের ছেলে মো. ওবায়দুর রহমান (৩২)।

মামলা সূত্রে জানা যায়, মহিপুর গ্রামের মো. সোহেল রানার স্ত্রী বিগত কয়েকদিন আগে বেড়ানোর জন্য ঢাকার গাজীপুর সাইনবোর্ড এলাকাস্থ মামার বাসায় যান। পরে গত ০৪ডিসেম্বর বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। ওইদিনগত রাত অনুমান বারোটার দিকে মহিপুর বাজার এলাকায় নামেন। কিন্তু যাত্রীবাহী বাস থেকে নামা মাত্র অভিযুক্ত ব্যক্তিরা ওই গৃহবধূকে পথরোধ করেন। এমনকি বাজারের একটি মুদি দোকানের মধ্যে অবরুদ্ধ করে তার ব্যাগে তল্লাশি চালায়। এভাবে প্রায় দুই ঘন্টা অহেতুক হয়রানী ও হেনস্থা করা হয় ওই বধূকে। একপর্যায়ে খবর পেয়ে তার মা থানায় সংবাদ দেন। পরে পুলিশ এসে এই নারীকে উদ্ধারসহ ওই তিন যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে যান এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম আবুল কালাম আজাদ বলেন, উক্ত ঘটনায় থানায় মামলা নেয়া হয়েছে। এছাড়া মামলায় অভিযুক্ত আটক হওয়া ব্যক্তিদের রোববার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা