শিবগঞ্জে প্রতিবন্ধীর শিশু কন্যা ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগে ব্যবসায়ী আটক3 মিনিটে পড়ুন

36

শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শিবগঞ্জে প্রতিবন্ধীর শিশু কন্যা ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগ এক লম্পট ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুুলিশ।

জানা যায়, উপজেলা শিবগঞ্জ ইউনিয়নের সাদুল্লাপুর চকমিলি গ্রামের প্রতিবন্ধী বেলাল হোসেন মেয়ে সাদুল্লাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী (১১) একই গ্রামের আক্কাস আলীর ছেলে মুদি ব্যবসায়ী আজিজুল ইসলাম (৪৫) ওই শিশুটিকে তার স্ত্রীর ছালমা বেগম এর মাধ্যমে মাঝে মধ্যে গত এক মাস পূর্ব থেকে তার বাড়িতে ডেকে নিয়ে সুপারি কাটা, হাত পা টিপে নেওয়া সহ বিভিন্ন অযুহাতে নিয়ে যায়। গত সোমবার পুনরায় লম্পট আজিজুল কৌশলে ওই প্রতিবন্ধীর শিশু কন্যা কে কৌশলে ডেকে নিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে। ওই শিশু তার পিতা-মাতাকে বিষয়টি জানালে, তার পরিবারের লোকজন থানা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে থানা পুলিশ লম্পট ব্যবসায়ীকে আটক করে । এ ব্যাপারে শিশুটির মা রিপা বেগম বলেন, আমার মেয়েকে লম্পট আজিজুল এর স্ত্রী ছালমা বেগম মাঝে মধ্যেই সুপারি কাটা সহ বিভিন্ন অযুহাতে তাদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। লম্পট আজিজুল আমার মেয়েকে ধর্ষন করার চেষ্টা করেছে। আমি এর সঠিক বিচার চাই। সরেজিমনে গেলে শিশুটির দাদী গোলাপী বেগম, চাচী সুমনা বেগম, দাদা জহুরুল ইসলাম সহ গ্রামের অনেকে বলেন, মাঝে মধ্যেই ওই লম্পট এ শিশুটিকে বাড়িতে ডেকে এধরনের ঘটনা ঘটায়। তারা অভিযোগ করে আরো বলেন ইতিপূর্বে একই গ্রামের আহাম্মাদ আলীর ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকেও সে ধর্ষনের চেষ্টা করেছে। উপস্থিত উক্ত গ্রামের কলেজ ছাত্রী সুমাইয়া খাতুন, স্কুল ছাত্রী রিমা খাতুন, সাদিয়া আক্তার সহ কয়েক জন শিক্ষার্থী তারা এই লম্পটের বিচার চান এবং তাদের নিরাপত্তা দাবী করেন। এব্যাপারে থানা অফিসার ইনচার্জ এসএম বদিউজ্জামান বলেন, তাৎক্ষনিক খবর পেয়ে শিশু ধর্ষনের অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদ এর জন্য আজিজুল কে আটক করা হয়েছে। শিশু’র পরিবারকে জিজ্ঞাসাবাদ এর জন্য থানায় আনা হয়েছে। সঠিক তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।