সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি জুয়েল বগুড়া জেলা আ.লীগের দপ্তর সম্পাদক3 মিনিটে পড়ুন

70

আব্দুল আউয়াল

বগুড়ায় জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক হলেন আল রাজি জুয়েল। গতবছর ডিসেম্বরের ৭ তারিখে সম্মেলনের মাধ্যমে সংগঠনটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ বিভিন্ন পদে মোট  ৭ জনকে মনোনীত করে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ।

এর ঠিক প্রায় ১ বছর পর ২৩ নভেম্বর কমিটির ৭ টি পদ ফাঁকা রেখে ৬৮ জন সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা প্রকাশ করা হয়।

পরে তা ২৯ নভেম্বর ফাঁকা পদ পূরণ সহ বিভিন্ন পদে সংযোজন বিয়োজন করে ৭৫ জন সদস্যর বিশিষ্ট কমিটির তালিকায় অনুমোদন দেন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াদুল কাদের।

আল রাজি জুয়েল ২০১৬ সালের জেলা আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদকের দায়িত্ব পান।

এরআগে তিনি ২০১০ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত জেলা ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ছাত্রলীগ সভাপতি হওয়ার আগেও এই নেতা জেলা ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন।

তিনি ১৯৯৭ সালে সরকারি আজিজুল হক কলেজ (পুরাতন ভবন) শাখা ছাত্রলীগের আহব্বায়ক, ২০০২ সালে বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের আহব্বায়ক  কমিটির সদস্য, ২০০৩ সালে সরকারি আজিজুল হক কলেজ ছাত্রলীগের আহব্বায়ক  কমিটির সদস্য ও ২০০৪ সালে বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে যুগ্ম -সাধারণ সম্পাদক মননোনীত হয়ে ২০০৯ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন৷

রাজনৈতিক অঙ্গনে বিভিন্ন দায়িত্বের পাশাপাশি আল রাজি জুয়েল জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্য্যনির্বাহী কমিটির সদস্য, সুবিল উচ্চ বিদ্যালয় ও দারুল আরকাম ইবতেদায়ী হাফেজী মাদ্রাসা সভাপতি, বগুড়া ডেভেলপমেন্ট এন্ড ইমপ্লিমেন্ট অরর্গানাইজেশন (বিডিইও) নির্বাহী পরিচালক ও বগুড়া ডায়াবেটিকস সমিতি আজীবন সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

আল রাজি জুয়েল জানান, আমি যে দায়িত্ব পেয়েছি   তার মেয়াদের শেষ দিন পর্যন্ত স্বাধীনতার মহান স্থাপতি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অনুসারে কাজ করবো।

এছাড়াও তরুণ প্রজন্মের কাছে আওয়ামীলীগ ও বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার আধুনিক বাংলাদেশের ভিশন বাস্তবায়নে কাজ করে যবো।

করোনা সংক্রমণের পর থেকে জেলা আওয়ামীলীগের এই নেতা তার সামাজিক সংগঠন  বগুড়া ডেভেলপমেন্ট এন্ড ইমপ্লিমেন্ট অরর্গানাইজেশন (বিডিইও) পক্ষ থেকে সচেতনতা মূলক বিভিন্ন কর্মসূচি সহ অসহায় বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষদের খাদ্য ও নগদ অর্থ সহায়তা দিয়েছে।