উইঘুর মুসলিমদের ওপর নজরদারি, হুয়াওয়ের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করলেন গ্রিজম্যান2 মিনিটে পড়ুন

31

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

চীনে সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর নিপীড়নের ঘটনা চলছে অনেক দিন ধরেই। যার প্রতিবাদে নিজের স্পন্সর প্রতিষ্ঠান ও চীনা মোবাইল কোম্পানি হুয়াওয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছেন বার্সেলোনার বিশ্বকাপজয়ী ফরাসি তারকা আঁতোয়ান গ্রিজম্যান।

সাম্প্রতিক সময়ে সংবাদমাধ্যমে হুয়াওয়েকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। সেখানে জানানো হয়, উইঘুরদের চিহ্নিত করতে একটি সফটওয়্যার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছে হুয়াওয়ে। এই সফটওয়্যার মুখ পরীক্ষা করে উইঘুরদের চিহ্নিত করতে পারবে, যা সাহায্য করবে চীনের পুলিশ বিভাগকে। চীনের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী উইঘুরদের চিহ্নিত করে দমননীতির আশ্রয় নিচ্ছে। সংবাদমাধ্যমে হুয়াওয়ের এই সফটওয়্যার পরীক্ষার খবর প্রকাশ হওয়ার পর কাল প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে স্পনসরশিপ চুক্তি বাতিল করেন ২৯ বছর বয়সী এ তারকা।
চুক্তি বাতিল করার ঘোষণা দিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে গ্রিজমান লিখেছেন, ‘উইঘুর অ্যালার্ট নামে মুখ দেখে চেনা যায় এমন সফটওয়্যারের উন্নতিতে সাহায্য করছে, এমন সন্দেহ থাকায় আমি তাৎক্ষণিকভাবে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে সম্পর্কের ইতি টানছি।’ এ বছরের জুলাইয়ে স্যামসাং ও অ্যাপলকে টপকে বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে উঠে এসেছে হুয়াওয়ে। ২০১৭ সাল থেকে গ্রিজমান ছিলেন এই প্রতিষ্ঠানের বৈশ্বিক দূত এবং তাদের বিজ্ঞাপনেও অংশ নিয়েছেন।

সংবাদমাধ্যমগুলোর তদন্তে উঠে এসেছে, উইঘুরদের জন্মহার নিয়ন্ত্রণ করতে কড়া দমননীতির আশ্রয় নিয়েছে চীন। হত্যার মতো ঘৃণ্য কাজ চালিয়ে যাওয়ায় চীনের নিন্দা চলেছে বিশ্বজুড়ে। গত মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রকেন্দ্রিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইপিভিএম জানায়, উইঘুরদের মুখ দেখে চিনতে একটি সফটওয়্যার তৈরির কাজে জড়িত রয়েছে হুয়াওয়ে। চীনের সরকার উইঘুরদের চিহ্নিত করতে এটি ব্যবহার করতে পারে। অবশ্য হুয়াওয়ের এক মুখপাত্র বিবিসিকে জানিয়েছেন, অভিযোগটি সম্পূর্ণ ‘অগ্রহণযোগ্য’ এবং প্রতিষ্ঠানের নীতি-নৈতিকতার মধ্যে কোনো জাতির প্রতি বৈষম্যমূলক মনোভাব নেই।