দ্রুত ‘কাম ব্যাক’ করতে চান সাকিব3 মিনিটে পড়ুন

80

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল- আইসিসির নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মাঠে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান। দেশের সাবেক অধিনায়ক এক বছর কোনো ধরনের ক্রিকেটই খেলতে পারেননি। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টিতে তাই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের দিকে সবার চোখ। না, তিনি ৮ ম্যাচ খেলার পরও ব্যাটে-বলে ভক্ত-সমর্থকদের মন ভরাতে পারেননি। সেই সাকিবকে যেন খুঁজেই পাওয়া যাচ্ছে না। গতকাল তিনি ঢাকার বিপক্ষে লক্ষ্যভ্রষ্ট এক শট খেলে আউট হন মাত্র ৮ রান করে। এখন পর্যন্ত ৮ ইনিংসে তার শিকার ৫ উইকেট। সব মিলিয়ে ব্যর্থতা থেকে বের হতেই পারছেন না দেশের এই মহাতারকা।

তবে তিনি হাল ছাড়েননি। আশায় আছেন ফিরবেন যে কোনো সময়। কবে ফর্মে ফিরবেন? গতকাল ম্যাচ শেষে এমন প্রশ্নের উত্তরে সাকিব আল হাসান বলেন, ‘জানি না (হাসি) দেখি কত দ্রুত কামব্যাক করা যায়। চেষ্টা থাকবে যেন ভালো করতে পারি। বাকিটা দেখা যাক।’
তার দল খুলনা ৮ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে প্লে অফে খেলা নিশ্চিত করেছে। গ্রুপ পর্বে তাদের আর ম্যাচ নেই। পরের ম্যাচগুলোতে নির্ধারণ হবে আসরের দুই ফাইনালিস্ট । কিন্তু পরপর দুই ম্যাচ হেরে অনেকটাই ব্যাক ফুটে তার দল। তবে সাকিব বিশ্বাস করেন টি-টোয়েন্টিতে যে কোনো মুহূর্তে ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব। সাকিব বলেন, ‘টি-টোয়েন্টি যেহেতু মোমেন্টামের খেলা। তিনদিনে একটা প্রভাব পড়তেই পারে। সুতরাং আমরা আবার রিগ্রুপ করে নতুন করে শুরুর চেষ্টা করবো। যেহেতু একটা ম্যাচের ব্যাপার, আমরা যদি ভালো ক্রিকেট খেলতে পারি তাহলে ভালো ফল সম্ভব।’ গতকালের ম্যাচে হারের ব্যাখ্যায় তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় উইকেট খুবই ভালো ছিল। দেখেন নিয়মিত উইকেট হারানোর পরও আমরা মাত্র ১৬-১৭ রানে হেরেছি (মূলত ২০ রানে)। আমরা যদি একটা বড় জুটি গড়তে পারতাম বা শুরুটা ভালো করতে পারতাম যা আমরা পারিনি। পাওয়ার প্লে’র ৬ ওভারে আমরা ভালো ব্যাটিং করিনি। ওটা করতে পারলে ম্যাচটা আরও ভালো অবস্থায় যেতে পারতো লাস্ট দুই ওভারে আমাদের হাতে যদি উইকেট থাকতো।’
গেল বছর অক্টোবরে ফিক্সারদের প্রস্তাব গোপন করার অভিযোগে আইসিসি তাকে নিষিদ্ধ করে ২ বছরে জন্য। এর মধ্যে একবছর ছিল স্থগিত নিষেধাজ্ঞা। আরেক বছর তার জন্য সব ধরনের ক্রিকেট খেলার ওপর নিষেধাজ্ঞা ছিল। এ বছর ২৯শে অক্টোবর তিনি মুক্ত হয়েছেন। এরপরই তিনি মাঠে ফিরেছেন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ দিয়ে।