বিয়ের দিনই পঙ্গু কনে, বরসহ হাসপাতালে3 মিনিটে পড়ুন

35

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

মাত্র কয়েক ঘণ্টা পর বিয়ে। বাড়ি ভরা লোক, আনন্দের ছড়াছড়ি চারদিকে।

এর মধ্যেই ঘটে গেল এক ভয়াবহ দুর্ঘটনা। তিনতলা থেকে পড়ে আমচকা পঙ্গু হয়ে গেল বিয়ের কনে। সিনেমার গল্পের মতো মনে হলেও এটি বাস্তব ঘটনা।

ভারতের উত্তর প্রদেশের প্রতাপগড়ে আরতি মৌর্যের সঙ্গে পাশের গ্রামের অবধেশের বিয়ে ঠিক হয়েছিল। এই ডিসেম্বর মাসের ৮ তারিখ বিয়ের দিন ছিল। বিয়ের কয়েক ঘণ্টা আগে একটি বাচ্চাকে বাঁচাতে গিয়ে ছাদ থেকে পড়ে যান আরতি। তার শিরদাঁড়া দু’টুকরো হয়ে যায়। এমনকি, কোমর, হাত, পায়েও গুরুতর চোট লাগে।

তাকে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা জানিয়ে দেন, আগামী কয়েক মাস আরতিকে বিছানায় শুয়ে থাকতে হবে। এমনকি, তার সম্পূর্ণ সুস্থ হওয়ার সম্ভাবনাও খুবই কম।

এই অবস্থায় বিয়ে বাড়িতে নেমে আসে শোকের ছায়া। আরতির পরিবার অবধেশের মতো ভালো পাত্র হাতছাড়া করতে চান না। তারাই অবধেশকে প্রস্তাব দেন আরতির বোনকে বিয়ে করার।

কনে পরিবারের এই অনুরোধে কান দেননি অবধেশ। তিনি সাফ জানিয়ে দেন, আরতিকে ছাড়া কাউকে বিয়ে করবেন না তিনি। দরকার পড়লে হাসপাতালে বিয়ে করবেন আরতিকে। তার সেবা করেই কাটিয়ে দেবে বাকি জীবন, তবু আরতিকে একা রেখে যাবেন না। অবধেশের কথা, যেকোনো সময়, আমাদের যে কারো জীবনেই এমন দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এজন্য প্রিয়জনকে ছেড়ে অন্য কাউকে জীবনসঙ্গী করার প্রশ্নই ওঠে না।

অবধেশের ইচ্ছা এই দিনেই আগের নির্ধারিত সময়েরই বিয়ে করার। চিকিৎসকদের এটা জানানো হলে, তারাও অবধেশের অসাধারণ সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাতে সাহায্য করেন। ব্যবস্থা করে দেন ঘণ্টা দু’য়েকের জন্য আরতিকে অ্যাম্বুল্যান্সে করে প্রয়োজনীয় মেডিক্যাল সার্পোট দিয়ে বাড়িতে পাঠান। সেখানে লগ্ন মেনে তাদের বিয়ে হয়। অবধেশের সঙ্গেই আরতি আবার ফিরে আসেন হাসপাতালে। এরপর থেকে জীবনসঙ্গী নতুন বউয়ের সেবা করেই সময় যাচ্ছে অবধেশের।