অস্ত্র বিক্রি করতে গিয়ে পুলিশ কনস্টেবল গ্রেপ্তার3 মিনিটে পড়ুন

28

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

ছুটি নিয়ে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় গ্রামের বাড়িতে যাওয়ার কথা শিল্প পুলিশের কনস্টেবল স্বরূপ বড়–য়ার (২৭)। কিন্তু বাড়িতে না গিয়ে তিনি গিয়েছেন অস্ত্র বিক্রি করতে। এ সময় একটি রিভলবারসহ হাতেনাতে তাকে গ্রেপ্তার করে চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। শুক্রবার রাত ১১টার দিকে নগরীর কোতোয়ালী থানার সিনেমা প্যালেসের আদর আবাসিক হোটেলের দ্বিতীয় তলা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হলেও গোপনীয়তার মধ্য দিয়ে শনিবার সন্ধ্যায় আদালতে তোলার পর ফাঁস হয় এই ঘটনা। ঘটনায় গোয়েন্দা পুলিশের দায়ের করা মামলায় আদালত স্বরুপ বড়ুয়াকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। শনিবার রাত ১০টার দিকে তথ্যটি নিশ্চিত করেন সিএমপির গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) মুহাম্মদ আলী হোসেন।

তিনি বলেন, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে নগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম সিনেমা প্যালেসের আদর আবাসিক হোটেলের দ্বিতীয় তলা থেকে অস্ত্র বিক্রির জন্য অপেক্ষারত এক ব্যক্তিকে আটক করে। পরে তার কাছ থেকে একটি রিভলবার উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি নিজেকে শিল্প পুলিশের সদস্য পরিচয় দিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে ডিবির এসআই বেলাল উদ্দিন বাদী হয়ে কোতোয়ালী থানায় শনিবার অস্ত্র আইনে একটি মামলা করেছেন। এরপর সন্ধ্যার দিকে তাকে আদালতে তোলা হয়।

চট্টগ্রাম শিল্প পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (গোয়েন্দা ও মিডিয়া) জসিম উদ্দীন বলেন, স্বরূপ বড়–য়া গত ২০শে নভেম্বর সিএমপির গোয়েন্দা বিভাগ থেকে চট্টগ্রাম শিল্প পুলিশে যোগ দেন। এরপর গত ২৩শে ডিসেম্বর থেকে আগামী ২৮শে ডিসেম্বর পর্যন্ত তিনি ৫দিনের ছুটিতে আছেন। এ সময় তিনি চট্টগ্রামের রাঙ্গুুনিয়ায় বাড়ি যাওয়ার কথা বলেন। কিন্তু তিনি বাড়ি না গিয়ে গেছেন অস্ত্র বিক্রি করতে। ডিবি পুলিশ অস্ত্রসহ তাকে আটক করে মামলা দিয়েছে।

তিনি জানান, গ্রেপ্তার স্বরূপ বড়ুয়া চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পারুয়া ইউনিয়নের প্রকৃত বড়–য়ার ছেলে। এ ঘটনায় কনস্টেবল স্বরূপ বড়–য়াকে সাময়িক বরখাস্ত করার আদেশ দিয়েছেন চট্টগ্রাম শিল্প পুলিশের এসপি। পরে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলাসহ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, এর আগে গত বৃহ¯পতিবার এক ব্যক্তির কাছ থেকে ২ লাখ ৮০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর ভয় দেখানোর সময় সীতাকুন্ড থানার এসআই সাইফুল ইসলাম ও কনস্টেবল সাইফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়।