ছবির চেয়ে বিতর্কে বেশি বাণী কাপুর3 মিনিটে পড়ুন

34

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

পারিবারিক ধারার বিরুদ্ধে গিয়ে বলিউডে ক্যারিয়ার করেছেন বলিউড অভিনেত্রী বাণী কাপুর। বয়স ৩০ বছর পেরিয়ে যাওয়ার পরেও তিনি অবিবাহিতা। বেশ কিছু বিজ্ঞাপনের সুবাদে মডেলিংয়ের দুনিয়ায় পরিচিত মুখ হয়ে ওঠেন তিনি। তাকে দেখা গিয়েছিল যশরাজ ফিল্মসের মিউজিক ভিডিও ‘ম্যায়ঁ ইয়ার মনানা নি’-তেও। ‘ম্যাক্সিম’, ‘কসমোপলিটন’, ‘এল’, ‘ভোগ’-সহ পৃথিবীর বিখ্যাত লাইফস্টাইল পত্রিকার প্রচ্ছদে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। ২০১৩ সালে অডিশন দিয়ে বাণী সুযোগ পান ‘শুধ দেশি রোমান্স’ ছবিতে। আদিত্য চোপড়া প্রযোজিত এই ছবিতে তার সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেছিলেন সুশান্ত সিংহ রাজপুত এবং পরিণীতি চোপড়া। ছবিতে বাণী অভিনীত ‘তারা’ চরিত্রটি প্রশংসিত হয়।
বক্স অফিসে সফল এই ছবিতে অভিনয় করে সেরা নবাগতা হিসেবে পুরস্কৃত হন তিনি। পরের বছর তিনি অভিনয় করেন তামিল ছবি ‘আহা কল্যাণম’-এ। তবে ছবির চেয়ে বিতর্কে বেশি বলিউড অভিনেত্রী বাণী কাপুর। তার অভিনীত ‘বেফিকরে’ ছবির ট্রেলর মুক্তির পরে দর্শকরা দাবি করেন, তিনি প্লাস্টিক সার্জারি করিয়েছেন। ফলে পাল্টে গিয়েছে তার নাক, ঠোঁট এবং চিকবোনের গড়ন। এই অভিযোগ উড়িয়ে দেন বাণী। তার দাবি ছিল, তিনি ওজন কমিয়ে রোগা হয়েছেন। তা ছাড়া প্যারিসে তীব্র ঠান্ডায় ‘বেফিকরে’-এর শুটিং হয়েছে। ফলে এই সব কারণেই তাকে অন্যরকম দেখিয়েছে বলে দাবি ছিল নায়িকার। কিন্তু তার এই দাবিতে দর্শকদের মুখ বন্ধ করা যায়নি। শেষে বাণী বলেন, প্লাস্টিক সার্জারি করার মতো আর্থিক সঙ্গতি তার নেই। তবে ইন্ডাস্ট্রিতে বাকি যারা প্লাস্টিক সার্জারি করিয়েছেন, তাদের নিয়েও কোনও মন্তব্য করতে চাননি তিনি। বার বার একই প্রসঙ্গে প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হতে তিনি ক্লান্ত, জানান বাণী। এদিকে প্রথমে ফ্যাশন ডিজাইনার নিখিল থাম্পি এবং পরে পরিচালক আদিত্য চোপড়ার সঙ্গে বাণীর প্রেমের গুঞ্জন শোনা গিয়েছে। তবে দু’টি সম্পর্কের কথাই অস্বীকার করেছেন তিনি। পোশাকের জন্য তার নামে দায়ের করা হয়েছে এফআইআর-ও। একবার সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন বাণী। সেখানে তিনি একটি খোলামেলা টপ পরেছিলেন। ওই পোশাকের কাপড় ছিল নামাবলীর মতো দেখতে। কাপড়টিতে ‘রাম’ নাম লেখা ছিল। এর পর বাণীর নামে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়। বাণীকে ক্ষমাপ্রার্থনার জন্যেও দাবি উঠেছিল নেটাগরিকদের একাংশের মধ্যে। ক্ষমা না চাইলেও বাণী ছবিটি সরিয়ে দেন প্রোফাইল থেকে।