প্রবাসীরা করোনা টেস্ট না করলে জেল জরিমানা

মালয়েশিয়ায় লকডাউন বাড়লো আরো ৩ মাস

2 মিনিটে পড়ুন
37

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

মালয়েশিয়ায় লকডাউনের সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে। দেশটিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ অব্যাহত থাকায় আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত রিকভারি মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার (আরএমসিও) অনুযায়ী লকডাউনের সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে। শুক্রবার দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ইসমাঈল সাবরি ইয়াকুব স্থানীয় গণমাধ্যমে এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন। এছাড়াও দেশটিতে অভিবাসীকর্মীদের চলতি পহেলা জানুয়ারি থেকে করোনা পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করেছে সরকার।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানান বলেন, পরীক্ষা না করলে এক হাজার মালয়েশিয়ান রিংগিত বা ছয় মাস কারাদণ্ড হতে পারে। মালয়েশিয়ায় দ্বিতীয় করোনা সংক্রমণ এক লাখ ১৫ হাজার ছাড়িয়েছে। সংক্রমণ ধারাবাহিকভাবে বেড়েই চলেছে। তাই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত মতে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে একটানা তিন মাস লকডাউন বাড়ানো হয়েছে।

লকডাউন আইন লঙ্ঘন করলে গ্রেফতার করে তাদের বিচারের মুখোমুখি আনা হবে বলেও জানান তিনি। গত ডিসেম্বরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ঘোষণায় জানায়, প্রত্যেক বিদেশী কর্মীদের করোনা টেস্ট বাধ্যতামূলক। নিয়োগকর্তারা টেস্টের ব্যয়ভার বহন করবেন। না মানলে শ্রমিক ও মালিক উভয়ের জেল জরিমানার সম্মুখীন হতে হবে।

এদিকে মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মীরা করোনা আক্রান্ত হওয়ায় ১ জানুয়ারি থেকে ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত দূতাবাসের পাসপোর্ট কার্যক্রম সাময়িকভাবে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৬৮ জন, মারা গেছেন তিনজন। এ পর্যন্ত মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশী প্রবাসীদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেলেও করোনায় মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।