১০ লাখ টাকার মাদক উদ্ধার

হোটেল থেকে আটক অভিনেত্রীর পরিচয় পাওয়া গেছে

2 মিনিটে পড়ুন
33

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর একের পর এক আলোচনায় উঠে এসেছে ভারতীয় সিনেমা জগতের সঙ্গে মাদকের সংশ্লিষ্টতা। এবার সেই মাদকযোগের অভিযোগ উঠছে দক্ষিণী চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি টলিউডের এক অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে। মুম্বাইয়ের এক হোটেল থেকে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি) তাকে আটক করেছে।

আটককৃত ২৭ বছর বয়সী ওই অভিনেত্রীর নাম শ্বেতা কুমারি। ইতোমধ্যে তার মেডিক্যাল পরীক্ষা করানো হয়েছে। শ্বেতা মূলত কন্নড় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির একজন স্বল্প বাজেটের অভিনেত্রী। ২০১৫ সালের কন্নড় চলচ্চিত্র ‘রিং মাস্টার’ দিয়ে চলচ্চিত্রে অভিষিক্ত হন। শ্বেতা ভারতের হায়দরাবাদের বাসিন্দা।

জানা যায়, ওই অভিনেত্রীর সঙ্গে এক মাদক পাচারকারীকেও আটক করেছে এনসিবি।

ভারতের সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, মুম্বাইয়ের মীরা রোডের একটি হোটেলে গত ১ জানুয়ারি থেকে অবস্থান করছিলেন ওই অভিনেত্রী। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে শনিবার রাতে হোটেলে অভিযান চালান এনসিবির কর্মকর্তারা। সেখানে তল্লাশির পর রবিবার আটক করা হয় ওই অভিনেত্রীকে।

এনসিবি জানায়, অভিযানের সময় চাঁদ মোহম্মদ নামে এক মাদক পাচারকারীকেও আটক করা হয়। তবে সাইদ নামে এক মাদক সরবরাহকারী হোটেল থেকে পালিয়ে গেছে। তাকে ধরতে অভিযান চলছে। এ ছাড়া অভিযানে ৮ থেকে ১০ লাখ টাকার মাদক উদ্ধার করা হয়েছে।

ওই অভিনেত্রী কিভাবে মাদকের ঘটনায় জড়িয়ে পড়লেন বা পুরো বিষয়ে তার ভূমিকাই বা কতখানি, তা খতিয়ে দেখছে এনসিবি। এ ছাড়া মীরা রোডের ওই হোটেল এবং তার মালিকও এনসিবির সন্দেহের তালিকায় আছে। হোটেলের মালিক ও কর্মচারীদের এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।