দুর্গন্ধের উৎস খুঁজতে গিয়ে পেলেন ছেলের লাশ2 মিনিটে পড়ুন

33

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

১৮ দিন আগে নিখোঁজ হয়েছিল মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার হোসেন্দী এলাকায় হাসান মিয়া। ১৭ বছর বয়সী এই তরুণকে হন্য হয়ে খুঁজলেও কোথাও তার সন্ধান পাচ্ছিল না পরিবার। অবশেষে বাড়ির পাশের ডোবা থেকে আসা দুর্গন্ধের উৎস খুঁজতে গিয়ে মা-বাবা সন্ধান পান ছেলের। তবে জীবিত না, পান প্রিয় সন্তানের অর্ধগলিত মরদেহ।

শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে স্বজনদের দেয়া খবরে মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত হাসান হোসেন্দী গ্রামের মো. শামীম হোসেনের ছেলে।

নিহতের মা হাসিনা বেগম জানান, গত ২১ ডিসেম্বর রাতে খাবার খেয়ে পাশের আলাদা একটি টিনের ঘরে ঘুমিয়েছিল হাসান। সকালে ছেলেকে ঘরে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন স্বজনরা। এরপর থেকেই তার কোনো সন্ধান মিলছিল না।

হাসানের বাবা শামীম হোসেন জানান, শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশের ডোবা থেকে দুর্গন্ধ পেয়ে তিনি ও তার স্ত্রী দুর্গন্ধের কারণ খুঁজতে গিয়ে মরদেহটি দেখতে পান। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে।

গজারিয়া থানার তদন্ত কেন্দ্রের উপ পরিদর্শক সুজিত সরকার জানান, খবর পেয়ে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে। তবে লাশটি অনেক দিনের হওয়ায় পচে-গলে গিয়েছে। লাশটির সুরতহাল শেষে সঠিক কারণ জানা যাবে। নিখোঁজের ঘটনায় থানায় কোনো প্রকার অভিযোগ বা জিডি করা হয়নি বলে জানান।