উশুর প্রথম গ্র্যান্ডমাস্টার আলমগীর শাহ2 মিনিটে পড়ুন

50

বগুড়া এক্সপ্রেস ডেস্ক

উশুতে এই প্রথম গ্র্যান্ডমাস্টার খেতাব পেয়েছেন কোচ আলমগীর শাহ ভূঁইয়া। বাংলাদেশ উশু ফেডারেশন তাকে এই সম্মানে ভূষিত করে। সদ্য সমাপ্ত জাতীয় উশু চ্যাম্পিয়নশিপে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল গ্র্যান্ডমাস্টারের একটি ক্রেস্ট আলমগীর শাহ ভূঁইয়ার হাতে তুলে দেন। ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক দুলাল হোসেন বলেন, ‘বিশ্বের বিভিন্ন দেশের উশুতে অনেক গ্র্যান্ডমাস্টার রয়েছে। তাই আমরা ওস্তাদকে এই উপাধী দিয়েছি। এখন আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি আদায়ের জন্য আমরা চীনে আন্তর্জাতিক উশু ফেডারেশনে (আইডব্লুইউএফ) ওস্তাদের যাবতীয় নথি পাঠাবো।’ ১৯৮০ সালে কারাতে-কুংফু করতেন আলমগীর শাহ। এরপর চীন থেকে ঢাকায় আসা উশুর ম্যাগাজিন দেখে উশু শেখা শুরু করেন তিনি। ১৯৮৬ সাল থেকে মতিঝিল সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে ছাত্রদের উশু শেখানোর মাধ্যমে বাংলাদেশে প্রচার শুরু করেন।
এক সময় সেনাবাহিনীতে খেলাটি অন্তর্ভূক্ত হলে কোচ হন আলমগীর। ২০১০ ঢাকা সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসে দু’টি করে সোনা ও রুপাজয়ী বাংলাদেশ জাতীয় উশু দলের কোচ ছিলেন। এরপর আন্তর্জাতিক রেফারি ও জাজের কোর্স সম্পন্ন করেন। ২০১৬ সালে গৌহাটি-শিলং এসএ গেমসে পাঁচটি ব্রোঞ্জ এবং গত বছর নেপালে অনুষ্ঠিত গেমসে তিনটি রুপা ও ১১টি ব্রোঞ্জ জিততে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বাংলাদেশের উশুকাদের সহায়তা করেন। দেশে প্রায় ৩৫ জন সাউথ এশিয়ান জাজ ও ৬০ জন উশু কোচের ওস্তাদ তিনি।