প্রেমের ফাঁদে ফেলে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ,অভিযুক্ত গ্রেপ্তার2 মিনিটে পড়ুন

36

অনলাইন ডেস্ক

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ার লক্ষিপুরা মহল্লায় এক স্কুলছাত্রী(১৬) ধর্ষণের শিকার হয়েছে। মেয়েটি স্থানীয় মজিদা বেগম বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করে। এ ঘটনায় মেয়েটির মা বাদি হয়ে ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ আজ শুক্রবার প্রধান আসামী আরমান সরদার (২৬) কে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেফতারকৃত আরমান উপজেলার মধ্য ভাণ্ডারিয়া মহল্লার বাবুল সরদারের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার মধ্য ভাণ্ডারিয়া মহল্লার বাবুল সরদারের ছেলে আরমান সরদার প্রতিবেশী দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে গত ১ জানুয়ারি রাতে তার বন্ধু লক্ষিপুরা মহল্লার সজীব বেপারী বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে আরমান মেয়েটিকে আটকে রেখে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। লোক ও সমাজের ভয়ে মেয়েটি প্রথমে এ নির্যাতনের ঘটনা চেপে যায়। পরে বিষয়টি পরিবারে জানাজানি হয়।

বৃহস্পতিবার রাতে মেয়েটির মা বাদী হয়ে ধর্ষক আরমান সরদার ও তার সহযোগী সজিব বেপারীকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ভাণ্ডারিয়া থানায় মামলা দায়ের করে। পুলিশ এ মামলার প্রধান আসামি আরমান সরদারকে গ্রেপ্তার করে আজ শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠায়।

ভাণ্ডারিয়া থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) এস.এম মাকসুদুর রহমান জানান, এ ঘটনায় ভাণ্ডারিয়া থানায় মামলা হয়েছে । প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। ভূক্তভোগি মেয়েটিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।