শ্যালকের বিয়ের গহনা চুরি করলেন দুলাভাই!3 মিনিটে পড়ুন

49

অনলাইন ডেস্ক

অনেক সময় নাটক বা সিনেমার দৃশ্যে দেখা যায় বিয়ের দিন কন্যার সব গহনা চুরি হয়ে গেছে। তবে বাস্তবে ঠিক এমনি একটি ঘটনা ঘটেছে। শ্যালকের বিয়ের গহনা চুরি করলেন দুলাভাই।

সোমবার (২৫ জানুয়ারি) ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের একটি প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব কলকাতার বেলেঘাটা এলাকায়।

বিয়ের দিন আলমারির ভিতর থেকে নবদম্পতির বিয়ের যাবতীয় গয়না চুরি হয়ে গেছে। আর তাতেই পরিবারের সবার মাথায় হাত। তবে এই চুরির তদন্ত করতে গিয়ে অনেকটা অবাক হয়েছে পুলিশ। যে চুরি করেছে সে ওই বাড়িরই জামাই। তার নাম পার্থসারথী ঘোষ। পূর্ব কলকাতার বেলেঘাটা পুলিশ তাকে এ ঘটনায় গ্রেফতার করেছে।

কলকাতার বেহালার রায়বাহাদুর রায় রোডে অভিযোগকারীর মেয়ের শ্বশুরবাড়িতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ পুরো আট লাখ টাকার গয়না উদ্ধার করে। পেশায় উদ্যানতত্ত্ববিদ পার্থসারথী একটি নার্সারির মালিক। কিন্তু লকডাউনের পর থেকে তার ব্যবসা ভাল যাচ্ছিল না। আর এক সাথে শ্যালকের এতো গয়না দেখে লোভ সামলাতে পারেননি জামাই।

পুলিশ ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছে, গত ১৭ জানুয়ারি ওই দম্পতির বিয়ে হয়। বিয়ের যাবতীয় গয়না বেলেঘাটার সুরেন সরকার রোডে দম্পতির ফ্ল্যাটের শোওয়ার ঘরে আলমারিতে রাখা হয়। কিন্তু ১৯ জানুয়ারি নবদম্পতি দেখেন, আলমারি থেকে উধাও পুরো গয়না। আর এতেই বাড়িতে শোরগোল পড়ে যায়। এই ব্যাপারে ছেলের বাবা বেলেঘাটা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

পুলিশের সন্দেহ হয়, বাড়ির কেউ চুরি করেছেন। সেই অনুযায়ী সবাইকে জেরা করাও শুরু হয়। কারা ওই ঘরে গিয়েছিলেন, সেই সূত্র ধরেই পুলিশ তদন্ত করতে শুরু করে। সন্দেহের তীর গিয়ে পড়ে বাড়ির বড় জামাই পার্থসারথীর উপর। একটানা জেরার মুখে ভেঙে পড়েন তিনি।

জেরা করার পর পুলিশ জানতে পারে যে, বাড়ির জামাই সুযোগ বুঝে শ্যালকের ঘরে ঢুকে আলমারির চাবি চুরি করেন। এরপর পুরো গয়না হাতিয়ে নিয়ে বেহালায় নিজের বাড়িতে গিয়ে লুকিয়ে রাখেন। ধৃত ব্যক্তিকে জেরা করা হচ্ছে বলে ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছে পুলিশ।