কাল দুপচাঁঁচিয়ার তালোড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন3 মিনিটে পড়ুন

103

উজ্জ্বল চক্রবর্ত্তী শিশির দুপচাঁচিয়া থেকে ঃ কাল সোমবার স্থগিত থাকা বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার তালোড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।ইতোমধ্যে অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহনের সকল প্রস্তÍতি সম্পন্ন করেছে উপজেলা নির্বাচন অফিস।তালোড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন মোট ৯ টি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে।এইসব ভোট কেন্দ্রগুলি হলো ০১নং-খানপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তিনতলা বিশিষ্ট নতুন ভবন,০২নং–খানপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ,০৩ নং-নওদাপাড়া দাখিল মাদ্রাসা কেন্দ্র,০৪ নং-দেবখন্ড রিয়াজুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয় ,০৫ নং-ইয়ং ষ্টার কাব টিনসেড(একতলা ভবন),০৬নং-বেলঘড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ,০৭নং-কইল হাটজামে মসজিদের পার্শ্বে হাটখোলায় দু’টি টিনসেড ভবন ,০৮নং-আলতাফনগর ইবনে সৈয়দ উচ্চ বিদ্যালয়, ০৯ নং-পরাণপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ।নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায় ,তালোড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের জন্য সকল প্রস্তÍতি সম্পন্ন হয়েছে ।তালোড়া ইউ,পি নির্বাচনে ৯টি ওয়ার্ডের জন্য ৯জন প্রিজাইডিং অফিসার,৪৬ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার এবং ৯২জন পোলিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।এছাড়া আইনশৃঙ্খলা তদারকি সহ আচরনবিধি প্রতি পালনে ও সুষ্ঠভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানের স্বার্থে ৩ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দ্বায়িত্ব পালন করবেন।আজ ২১ শে জুন তালোড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৬ জন চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন ,৬ জন প্রার্থীরা হলেন, আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক টিপু ,জাতীয় পার্টির অশোক কুমার দেব,স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান মেহেরুল ইসলাম,ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ এর মিনহাজুল ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী- মনোয়ারুল করিম তালুকদার ,ও শফির উদ্দিন।এবাদে সংরক্ষিত ৩টি মহিলা মেম্বার পদে ৯ জন প্রার্থী এবং ৯টি ওয়ার্ডের ৯টি মেম্বার পদের বিপরীতে ২৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতাকরছেন এই নির্বাচনে।বগুড়া জেলার দুপচাঁচিয়া থানার তালোড়া ইউনিয়ন পরিষদ ২০১৬ সালের ২ ২ শে মার্চ সর্বশেষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল।তালোড়া ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় মোট ভোটার সংখ্যার মধ্যে পুুরুষ ভোটার ৫ হাজার৪ শত ৯১জনএবং মহিলা ভোটার সংখ্যা ৫ হাজার ৪ শত ৬৯জন।নির্বাচন চলমান অবস্থায় পুলিশ কর্মকর্তা সহ পুলিশ ১২৮ জন সংশ্লিষ্ট নির্বাচন কাজে নিয়োজিত থাকবে ।এর মধ্যে ৯টি কেন্দ্রে ১জন করে ইন্সপেক্টর সার্বক্ষনিক থাকবেন ভোট শেষ হওয়া পযর্ন্ত। এছাড়াও ১৫৩ জন আনছার বাহিনী ভোট শেষ হওয়া পযর্ন্ত সার্বোক্ষনিক নিয়োজিত থাকবে বলে উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে।