প্রধানমন্ত্রীর সুস্থতার জন্য প্রতিদিন বাতি জ্বালান বীরঙ্গনা শিলাগুহ2 মিনিটে পড়ুন

84

অনলাইন ডেস্ক

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার আশ্রয়হীন, গৃহহীন মানুষের মাঝে জমিসহ ঘর উপহার দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় একজন উপকারভোগী প্রধানমন্ত্রীকে বোন সম্বোধন করে বলেন, আমি আপনার জন্য প্রতিদিন একটি করে দুই টাকা দামের বাতি জ্বালাই।

রোববার (২০ জুন) সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে দ্বিতীয় ধাপে উপকারভোগীদের কাছে ঘর ও জমির দলিল হস্তান্তর করেন প্রধানমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে সিলেটের জেলার একটি উপজেলায় উপকারভোগীর সঙ্গে কথা বলার সময় আবেগঘন পরিবেশ সৃষ্টি হয়। উপকারভোগীর কথা শুনে কেঁদে ফেলেন প্রধানমন্ত্রী।

উপকারভোগী বীরঙ্গনা শিলাগুহ ওই নারী প্রধানমন্ত্রীকে বোন সম্বোধন করে বলেন, আমি আপনার জন্য একটি করে দুই টাকা দামের বাতি জ্বালাই। আমি এখনো প্রতিদিন বাতি জ্বালাই। কারণ আমার বোন যাতে সুখী থাকে, আমার বোনকে যেন করোনা ভাইরাসে আক্রমণ করতে না পারে। আমার বোন যাতে হাজার বছর বাঁচে। সেই কামনা করি। আমি যুদ্ধের সময় ভাবতে পারিনি বঙ্গবন্ধুকন্যা শেষ পর্যন্ত বৃদ্ধ বয়সে বেঁচে থাকবে। তাই আজ আমি ভীষণ খুশি হয়েছি। মাননীয় নেতা প্রধানমন্ত্রী আপনার কাছে আমার একটা দাবি। আপনি আমায় যে ঘর দিয়েছেন, সেই ঘরে একটিবার আসবেন। আমি আপনাকে সাতকরা দিয়ে তরকারি রান্না করে খাওয়াবো।

এ সময় আপ্লুত হয়ে কান্না করতে দেখা যায় প্রধানমন্ত্রীকে।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনি খুব ভালো বক্তব্য রাখছেন। আমার আন্তরিক শুভেচ্ছা নেবেন। বোন আমি যদি সুযোগ পাই নিশ্চয়ই আমি আসার চেষ্টা করবো। তবে আপনাদের যে অবদান আপনাদের যে আত্মত্যাগ। এই আত্মত্যাগের মধ্য দিয়েই তো আমাদের স্বাধীনতা অর্জন। কাজেই আত্মত্যাগ কখনো বৃথা যায় না। হ্যাঁ হয়তো অনেক বছর আমরা আসতে পারিনি, এখন আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। আপনি ভালো থাকেন। আপনারা যারা ঘর পেয়েছেন সবাই ভালো থাকেন। সেই কামনা করি।