শেরপুরে কুলি শ্রমিক ইউনিয়নের অবৈধ কমিটি বাতিলের জন্য সংবাদ সম্মেলন3 মিনিটে পড়ুন

31

মোঃ জাকির হোসেন শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি

সাধারণ সদস্যদের লিখিত রেজুলেশনে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করেও তাদের অনুমোদনবিহীন অবৈধ কমিটি গঠন করছে সংগঠনের কতিপয় মাদকাসক্ত ও দুস্কৃতিকারীরা। ঘটনাটি ঘটেছে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ছোনকা বাজার ও বাসস্ট্যান্ড কুলি শ্রমিক ইউনিয়নে।

ওই সংগঠনের কতিপয় জনবিচ্ছিন্ন সদস্য গোপনে সংশ্লিষ্ট ট্রেড ইউনিয়নের কতিপয় কর্মকর্তাদের সাথে জোগসাজষে অনুমোদন নেয়া কমিটি বাতিলের দাবী জানিয়েছেন সংগঠনের অধিকাংশ সদস্য ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্যরা। এ লক্ষ্যে ১৮ সেপ্টেম্বর শনিবার বিকালে শেরপুর উপজেলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের উপদেষ্টা ও প্রধান নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম।
তিনি তার বক্তব্যে বলেন, উপজেলার ছোনকা বাজার ও বাসস্ট্যান্ড কুলি শ্রমিক ইউনিয়ন(রেজিঃ নং ৮৬৬) সংগঠনে প্রায় ৬০জন সদস্য নিয়ে পরিচালিত হয়ে আসছে। ওই সংগঠনের কার্যকরি কমিটির মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় সংগঠনের গঠনতন্ত্রের (২৩নং) ধারা মোতাবেক আমাকে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ ৩জনকে নিয়ে একটি নির্বাচনী পরিচালনা কমিটি গঠন করেন সংগঠনের সকল সদস্যবৃন্দ। নির্বাচন পরিচালনার ক্ষেত্রে রেজুলেশন, গঠনতন্ত্র, সদস্য রেজিষ্টার খাতা আমাদের বুঝে না দিয়ে কৌশলে নিজেদের কাছে সংগঠনের চতুর সদস্য শফিকুল ইসলাম শফিক ও নজরুল ইসলামসহ কয়েকজন। সংগঠনের সদস্যদের চুড়ান্ত, ভোটার তালিকা, নির্বাচন তফশিল ঘোষণা হয়নি অদ্যবধি। এদিকে সংগঠনের নেতৃত্ব ও নানা অনিয়মের রাজত্ব করতে শফিকুল ইসলাম শফিক ও নজরুল ইসলামসহ কয়েকজন কয়েকদিন আগে একটি রেজুলেশন খাতায় কৌশলের আমার স্বাক্ষর নেয়। এবং সংগঠনের দুই তৃতীয়াংশ সদস্যের মতামত উপেক্ষা করেই একটি কার্যকরী পরিষদের কমিটি অনুমোদন গোপনে নিয়ে আসে সংশ্লিষ্ট ট্রেড ইউনিয়নের কর্মকর্তাদের কাছ থেকে। এছাড়াও কমিটির অনুমোদন হয়েছে মর্মে এলাকায় প্রচার থাকলেও নির্বাচন পরিচালনা কমিটিসহ সংগঠনের অধিকাংশ সদস্যরাই জানেনা। এদিকে অবৈধ কমিটির নেতা বুনে গিয়ে সংগঠন পরিচালনা চেষ্টা চালাচ্ছে। এতে সাধারণ সদস্যদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে, যেকোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে। তাছাড়া সংগঠনের ওই তথাকথিত নেতা শফিকুল ইসলাম শফিকসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে মাদকের মামলা এবং একাধিক অভিযোগ রয়েছে। তাছাড়া সংগঠনের বর্তমান অবৈধ কমিটির অনুমোদন বাতিল পূর্বক সকল সদস্যদের মতামতের ভিক্তিতে পুনরায় কমিটি গঠনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আহবান জানাচ্ছি। এ সময় শ্রমিক নেতা ফজলে এলাহী, আব্দুর রাজ্জাকসহ কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন।