থানার ওসির মানবতা  নিয়ে চলছে নানা কথা সান্তাহারে রেল ষ্টেশনে ট্রেনে কাটা পড়ে ১ নারীর মৃত্যু

32

সজীব হাসান, আদমদিঘী   (বগুড়) প্রতিনিধি : সান্তাহার রেল ষ্টেশনে ট্রেনে কাটা পড়ে রেহেনা বেগম (৫৫)  নামের এক নারী  প্রায় দেড় ঘন্টা কাল মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে প্রচুর রক্তক্ষরনের পর তার  মৃত্যু হয়েছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন । সে গাইবান্ধা সাঘাটা উপজেলার শাহেদ হোসেনের স্ত্রী।  সংবাদ পেয়ে সান্তাহার রেলওয়ে থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ফিংগার প্রিন্টের মাধ্যমে তার পরিচয় জানার পর মঙ্গলবার সকালে তার লাশ পরিবারের লোকজনের কাছে দিয়েছে  জানাগাছে। সান্তাহর রেলওয়ে থানা পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টারদিকে সান্তাহার জংশন স্টেশনের চার নম্বর প্লাটফর্ম থেকে  ছেড়ে যাওয়া বোনার পাড়াগামী লোকাল  ট্রেনে উঠতে গিয়ে প্লাটফর্ম থেকে পরে ট্রেনের নীচে  কাটা পড়ে এক পা,এক হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে সে ঘটনাস্থলে গঙ্গাতে থাকে। এ অবস্থায় তিনি পানি খেতে চাইলে ট্রেনের জন্য স্টেশনে অপেক্ষায় থাকা যাত্রীরা তাকে পানি পান করান। দীর্ঘ প্রায় দেড় ঘন্টা কাল গঙ্গাতে গঙ্গাতে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।  সংবাদ পেয়ে রেলওয়ে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার মঙ্গলবার সকালে  পরিবারের  লোকজনের কাছে দেওয়া হয়েছে । প্রত্যক্ষদশিরা জানান, দুর্ঘটনার সাথে সাথে স্থানীয় রেলওয়ে থানার ওসির তাতক্ষণিক নির্দেশ পেলে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে হয়তোবা তিনি বেঁচে যেতেন। স্থানীয় রেলওয়ে থানার ওসির নির্দেশ পেতে দেরি হওয়ার কারনে প্রচুর রক্তক্ষরণের কারণে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়েছে। ঘটনার পর থেকে সান্তাহার রেলওয়ে থানার ওসি মুক্তার হোসেনের মানবতা ও দায়িত্ব নিয়ে এলাকায় নানাজন নানা কথা বলছে।