আদমদিঘীতে চতুর্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থী নিখোঁজ

42

সজীব হাসান,, (আদমদিঘী ) প্রতিনিধি: ঢাকায় একটি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে চাকরি করেন মা সুবর্ণা। আর বাবা রাসেল দুবাই প্রবাসী। বগুড়ার আদমদীঘির সান্তাহারে নানীর বাড়িতে থাকতো সোহান (১৪)। ঢাকায় তার মাকে দেখতে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বেরিয়ে গত চার দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে সোহান। আত্মীয়-স্বজনের বাড়িসহ সব জায়গায় খোঁজ করেও কোনো হদিস মিলছে না তার। পরে সোমবার দুপুরে তার নানি বুলবুলি বেগম থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ছোট বেলা থেকেই উপজেলার সান্তাহার ইউপির সান্দিড়া গ্রামের ব্যাপারীপাড়ায় নানির বাড়ি থেকে স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে সোহান। তার দাদার বাড়িও একই গ্রামে। দুই বছর আগে বাবা রাসেল দুবাই যান। এরপর থেকে মা সুবর্ণ তার ছোট ভাইকে নিয়ে দাদার বাড়িতে থাকতেন। মাস খানেক আগে তিনিও কাজের জন্য সোহানের কাছে তার ছোট ভাইকে রেখে ঢাকায় একটি গার্মেন্টসে চাকরি নেয়। এরপর থেকে সোহান ও তার ছোট ভাই নানা-নানির কাছে ছিল। কয়েক দিন ধরে মায়ের কথা মনে পড়ছিল সোহানের। বিষয়টি তার নানিকে একাধিক বার বলেছিল। গত শুক্রবার দুপুর ২টায় বাড়ি থেকে বের হয় সোহান। সোহানের নানি বুলবুলি কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান প্রথমে ভাবছিলাম তার বন্ধু বান্ধবের সঙ্গে আশপাশেই আছে। সন্ধ্যা নামলেও সে বাড়ি না ফেরায় অনেক খোঁজাখুঁজি করা হয়। পরে বিষয়টি তার মাকে সেও বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ নেয়। পরে থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করি। সোহন দেখতে শ্যাম বর্ণের মুখমণ্ডল গোলাকার, লম্বায় ৪ ফিট। কেউ তার সন্ধ্যান পেলে ০১৭৫৪-১৫৬৩৬৩ নম্বরে যোগাযোগ করার অনুরোধ জানিয়েছেন তার নানি বুলবুলি। আদমদীঘি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাজেশ কুমার চক্রবর্তী জানান এ বিষয় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করা হয়েছে। হারিয়ে যাওয়া সোহানের সন্ধানের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।