আদমদীঘিতে অপহৃত কলেজ ছাত্রী উদ্ধার একজন গ্রে’ফ’তা’র

34

সজীব হাসান,, আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি : আদমদীঘির ছাতিয়ানগ্রাম থেকে অপহৃত কলেজ ছাত্রীকে ৪ মাস পর বগুড়ার শিমুলিয়া গ্রাম থেকে উদ্ধার ও মূল আসামি মোঃ মোমিনকে গ্রেফতার করেছে আদমদীঘি থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত মোমিন আদমদীঘি উপজেলার ছাতিয়ান গ্রামের জাহিদুল ইসলাম বাচ্চুর ছেলে। গতকাল সোমবার বিকেলে বগুড়া সদর উপজেলার শিমুলিয়া মন্ডলপাড়ার একটি বাড়ি থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার ও গ্রেফতারকৃতকে গ্রেফতার করা হয়। আজ মঙ্গলবার (১১ জুন) দুপুরে ভিকটিমকে ডাক্তারী পরীক্ষা ও গ্রেফতারকৃতকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২০ জানুয়ারি বিকেলে মো: মোমিন ও তার সহযোগিরা দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ছাতিয়ানগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনপাড়ায় ভিকটিমের বাবার বাড়িতে প্রবেশ করে পরিবারের সকলকে অস্ত্রের মুখে ভয়ভীতি ও জিম্মি করে ওই কলেজ ছাত্রীকে জোরপুর্বক অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় আদমদীঘি থানায় উপজেলার ছাতিয়ানগ্রামের মো: মোমিন, রবিউল, বাবর ও নওগাঁর প্রিতমের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ৭/৮ জনের বিরুদ্ধে একটি অপহরণের মামলা দায়ের করা হয়। ছাত্রীকে অপহরণ করে মোমিন তাকে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে বেড়ায়। এদিকে মামলার তদন্তকারি থানার উপ পরিদর্শক তরিকুল ইসলাম গোপন সংবাদের ভিক্তিতে অপহরণের চার মাস ২০ দিন পর গতকাল সোমবার বিকেলে বগুড়া সদরের শিমুলিয়া মন্ডলপাড়ার একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অপহৃত ছাত্রীকে উদ্ধার ও মুল আসামি মো: মোমিনকে গ্রেফতার করেন। উল্লেখ্য এর আগে ওই ছাত্রী ১০ম শ্রেনিতে থাকাকালে ২০২২ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর মো: মোমিন ও তার সহযোগীরা তাকে জোরপুর্বক অপহরণ করেছিল। এই ঘটনার সাতদিন পর ওই ছাত্রীকে পুলিশ উদ্ধার করে। ওই ঘটনায় মোমিনসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে একটি অপহরণ মামলা হলে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে। পরে তারা জামিনে মুক্ত হয়।