তপশিল ঘোষণার পর নেতাকর্মীদের মিছিল করার নির্দেশ দিল আ.লীগ

117

বগুড়া এক্সপ্রেস অনলাইন ডেস্ক: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তপশিলকে ঘিরে দলের নেতাকর্মীদের সতর্ক ও তপশিল ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়ে দেশজুড়ে বড় ধরনের মিছিল করতে তৃণমূলের নেতাদের নির্দেশনা দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজ বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।
নেতাকর্মীদের পাঠানো বার্তায় বলা হয়, ‘সম্মানিত নেতৃবৃন্দ, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তপশিল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে নির্বাচনকে স্বাগত জানিয়ে নৌকার প্রচারণা চালিয়ে বড় ধরনের মিছিল করার জন্য সাংগঠনিক নির্দেশক্রমে অনুরোধ জানানো হচ্ছে।’
দ্বাদশ নির্বাচনের তপশিল কখন, কোন প্রক্রিয়ায় ঘোষণা করা হবে তা নিয়ে বুধবার সকালে নির্বাচন কমিশনে বৈঠক হবে বলে মঙ্গলবার গণমাধ্যমকে জানান ইসি সচিব মো. জাহাংগীর।
নির্বাচনের তপশিল ঘোষণার পরে দেশজুড়ে বিএনপি ‘অরাজকতা’ করতে পারে বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের নেতারা। এ কারণে তপশিল ঘোষণার পরে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা থানা ও ওয়ার্ডে মিছিল করবেন।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান বলেন, তপশিল ঘোষণা হলে সন্ধ্যায় বিভিন্ন ওয়ার্ডে অবস্থান করবে নেতাকর্মীরা।

তপশিল ঘোষণার পর আনন্দ মিছিল করবে বলে ঘোষণা দিয়েছে মহিলা আওয়ামী লীগ ও যুব মহিলা লীগ।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তপশিল ঘোষণার হতে পারে বুধবার। কাল বিকেল ৫টায় তপশিল ইস্যুতে বৈঠকে বসবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বাধীন নির্বাচন কমিশন। বৈঠকে সব ঠিক থাকলে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন সিইসি।

মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) নির্বাচন কমিশন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

ইসির ঘোষণা অনুযায়ী নভেম্বর মাসের প্রথমার্ধের বাকি আছে বুধবার (১৫ নভেম্বর) পর্যন্ত। ইসি সচিবের বক্তব্য অনুসারে বুধবার অথবা বৃহস্পতিবার তপশিল ঘোষণার একটা সম্ভাবনা আছে। তপশিল ঘোষণাকে কেন্দ্র করেও ইসির নিরাপত্তা বাড়ানো হতে পারে বলে জানিয়েছেন ইসির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা।

এর আগে গতকাল সোমবার নির্বাচন কমিশন ভবনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ইসি সচিব মো. জাহাংগীর আলম বলেন, নভেম্বরের প্রথমার্ধে তপশিল ঘোষণা হবে। প্রথমার্ধের দিন যেহেতু সামনে আছে, তাই আপনারা অপেক্ষা করুন।

প্রসঙ্গত, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটার সংখ্যা ১১ কোটি ৯৬ লাখ ৯১ হাজার ৬৩৩ জন। আর ভোটকেন্দ্র রয়েছে ৪২ হাজার ১০৩টি। ডিসেম্বরের শেষ থেকে আগামী বছরের জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
সুত্রঃ- কালবেলা অনলাইন